Skip to main content
وَأُوحِىَ
এবং ওহী করা হলো
إِلَىٰ
প্রতি
نُوحٍ
নূহের
أَنَّهُۥ
"যে
لَن
কখনও না
يُؤْمِنَ
কেউ ঈমান আনবে
مِن
মধ্য হ'তে
قَوْمِكَ
তোমার জাতির
إِلَّا
এ ছাড়া
مَن
যে
قَدْ
নিশ্চয়ই
ءَامَنَ
ঈমান এনেছে
فَلَا
অতএব না
تَبْتَئِسْ
তুমি বিমর্ষ হয়ো
بِمَا
ঐ বিষয়ে যা
كَانُوا۟
তারা ছিলো
يَفْعَلُونَ
তারা করে যাচ্ছে

তাফসীর তাইসীরুল কুরআন:

নূহের কাছে ওয়াহী পাঠানো হয়েছিল যে, যারা ঈমান এনেছে তারা ছাড়া তোমার সম্প্রদায়ের আর কোন লোক কক্ষনো ঈমান আনবে না, কাজেই তারা যা করছে তার জন্য তুমি হা-হুতাশ করো না।

1 আহসানুল বায়ান | Tafsir Ahsanul Bayaan

আর নূহের প্রতি অহী প্রেরিত হল, যারা বিশ্বাস করেছে, তারা ছাড়া তোমার সম্প্রদায় হতে আর কেউই বিশ্বাস করবে না, কাজেই যা তারা করছে, তার জন্য তুমি দুঃখ করো না। [১]

[১] যখন নূহ (আঃ) এর সম্প্রদায় আযাব আসার জন্য বলেছিল, তখন এই কথা বলা হয়েছিল এবং নূহ (আঃ) আল্লাহর দরবারে দু'আ করেছিলেন যে, 'হে আমার প্রভু! পৃথিবীতে বসবাসকারী একজন কাফেরকেও জীবিত রেখো না।' আল্লাহ তাআলা বলেন, 'এখন অতিরিক্ত আর কেউ ঈমান আনবে না, অতএব এ নিয়ে তুমি চিন্তা করো না।'

2 আবু বকর মুহাম্মাদ যাকারিয়া | Tafsir Abu Bakr Zakaria

আর নূহের প্রতি অহী করা হয়েছিল, ‘যারা ঈমান এনেছে তারা ছাড়া আপনার সম্প্রদায়ের অন্য কেউ কখনো ঈমান আনবে না। কাজেই তারা যা করে তার জন্য আপনি চিন্তিত হবেন না।’

3 আল-বায়ান ফাউন্ডেশন | Tafsir Bayaan Foundation

আর নূহের কাছে ওহী পাঠানো হল যে, ‘যারা ঈমান এনেছে, তারা ছাড়া তোমার কওমের আর কেউ ঈমান আনবে না। সুতরাং তারা যা করে সে জন্য তুমি দুঃখিত হয়ো না’।

4 মুহিউদ্দীন খান | Muhiuddin Khan

আর নূহ (আঃ) এর প্রতি ওহী প্রেরণ করা হলো যে, যারা ইতিমধ্যেই ঈমান এনেছে তাদের ছাড়া আপনার জাতির অন্য কেউ ঈমান আনবেনা এতএব তাদের কার্যকলাপে বিমর্ষ হবেন না।

5 জহুরুল হক | Zohurul Hoque

আর নূহের কাছে প্রত্যাদেশ দেয়া হল -- ''নিঃসন্দেহ তোমার সম্প্রদায়ের মধ্যে থেকে কেউ কখনও বিশ্বাস করবে না সে ব্যতীত যে ইতিমধ্যে বিশ্বাস করেছে, সুতরাং তারা যা করে চলেছে তার জন্য দুঃখ কর না।