Skip to main content

সূরা ত্বোয়া-হা শ্লোক 112

وَمَن
এবং যে
يَعْمَلْ
কাজ করবে
مِنَ
থেকে
ٱلصَّٰلِحَٰتِ
সৎকাজ
وَهُوَ
এ অবস্থায়(যে) সে
مُؤْمِنٌ
মু'মিন (হবে)
فَلَا
তাহ'লে না
يَخَافُ
সে ভয় করবে
ظُلْمًا
অত্যাচার
وَلَا
আর না
هَضْمًا
ক্ষতির

তাফসীর তাইসীরুল কুরআন:

যে সৎ কাজ করবে মু’মিন হয়ে, তার অবিচার বা ক্ষতির কোন আশংকা নেই।

1 আহসানুল বায়ান | Tafsir Ahsanul Bayaan

আর যে বিশ্বাসী হয়ে সৎকাজ করে তার কোন অবিচার ও ন্যায্য অধিকার থেকে বঞ্চনার আশঙ্কা নেই। [১]

[১] বে-ইনসাফি (অন্যায় বা অবিচার) এই যে, অন্যের পাপের বোঝা কারো ঘাড়ে চাপিয়ে দেওয়া হবে। আর অধিকার হনন বা ন্যায্য অধিকার থেকে বঞ্চিত করা এই যে, নেকীর বদলা কম করে দেওয়া হবে। কিয়ামতে এ উভয় জিনিসই হবে না।

2 আবু বকর মুহাম্মাদ যাকারিয়া | Tafsir Abu Bakr Zakaria

আর যে মুমিন হয়ে সৎকাজ করে , তার কোন আশংকা নেই অবিচারের ও অন্য কোন ক্ষতির।

3 আল-বায়ান ফাউন্ডেশন | Tafsir Bayaan Foundation

এবং যে মুমিন অবস্থায় ভাল কাজ করবে সে কোন যুলম বা ক্ষতির আশংকা করবে না।

4 মুহিউদ্দীন খান | Muhiuddin Khan

যে ঈমানদার অবস্থায় সৎকর্ম সম্পাদন করে, সে জুলুম ও ক্ষতির আশঙ্কা করবে না।

5 জহুরুল হক | Zohurul Hoque

আর যে কেউ সৎকর্ম থেকে কাজ করে যায় আর সে মুমিন হয়, সে তবে আশঙ্কা করবে না কোনো অবিচারের, আর না কোনো ক্ষতি হবার।