Skip to main content

সূরা আন নিসা শ্লোক 109

هَٰٓأَنتُمْ
হ্যাঁ তোমরাই
هَٰٓؤُلَآءِ
ঐসব লোক (যারা)
جَٰدَلْتُمْ
তোমরা ঝগড়া করেছ
عَنْهُمْ
তাদের পক্ষে
فِى
(মধ্যে)
ٱلْحَيَوٰةِ
জীবনে
ٱلدُّنْيَا
দুনিয়ায়
فَمَن
কে অতঃপর
يُجَٰدِلُ
ঝগড়া করবে
ٱللَّهَ
আল্লাহর (সাথে)
عَنْهُمْ
তাদের পক্ষে
يَوْمَ
দিনে
ٱلْقِيَٰمَةِ
কিয়ামাতের
أَم
অথবা
مَّن
কে
يَكُونُ
হবে
عَلَيْهِمْ
তাদের পক্ষে
وَكِيلًا
উকিল

তাফসীর তাইসীরুল কুরআন:

দেখ, ওরা সেই লোক যাদের পক্ষে পার্থিব জীবনে তোমরা বিতর্ক করছ কিন্তু ক্বিয়ামাত দিবসে তাদের পক্ষ হতে আল্লাহর সম্মুখে কে ঝগড়া করবে? কিংবা কে তাদের উকীল হবে?

1 আহসানুল বায়ান | Tafsir Ahsanul Bayaan

দেখ, তোমরাই পার্থিব জীবনে তাদের স্বপক্ষে বিতর্ক করেছ; কিন্তু কিয়ামতের দিন আল্লাহর সম্মুখে কে তাদের স্বপক্ষে কথা বলবে অথবা কে তাদের উকিল হবে? [১]

[১] অর্থাৎ, এই পাপের কারণে যখন তার পাকড়াও হবে, তখন আল্লাহর পাকড়াও থেকে তাকে কে বাঁচাতে পারবে?

2 আবু বকর মুহাম্মাদ যাকারিয়া | Tafsir Abu Bakr Zakaria

দেখ, তোমরাই ইহ জীবনে তারে পক্ষে বিতর্ক করছ; কিন্তু কিয়ামতের দিন আল্লাহর সম্মুখে কে তাদের পক্ষে বিতর্ক করবে অথবা কে তাদের উকিল হবে?

3 আল-বায়ান ফাউন্ডেশন | Tafsir Bayaan Foundation

হে, তোমরাই তো তারা, যারা দুনিয়ার জীবনে তাদের পক্ষে বিতর্ক করেছ। সুতরাং কিয়ামতের দিন তাদের পক্ষে আল্লাহর সাথে কে বিতর্ক করবে? কিংবা কে হবে তাদের তত্ত্বাবধায়ক?

4 মুহিউদ্দীন খান | Muhiuddin Khan

শুনছ? তোমরা তাদের পক্ষ থেকে পার্থিব জীবনে বিবাদ করছ, অতঃপর কেয়ামতের দিনে তাদের পক্ষ হয়ে আল্লাহর সাথে কে বিবাদ করবে অথবা কে তাদের কার্যনির্বাহী হবে।

5 জহুরুল হক | Zohurul Hoque

আর যে কেউ কুকর্ম করে অথবা নিজের আ‌ত্মার প্রতি জুলুম করে, তারপর আল্লাহ্‌র কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করে, সে আল্লাহ্‌কে পাবে পরিত্রাণকারী, অফুরন্ত ফলদাতা।