Skip to main content
ARBNDEENIDTRUR
bismillah
حمٓ
হা-মীম

হা-মীম।

ব্যাখ্যা
تَنزِيلٌ
অবতরণ করা (হয়েছে এটা)
مِّنَ
(আল্লাহর) পক্ষ হ'তে
ٱلرَّحْمَٰنِ
(যিনি) অশেষ দয়াময়
ٱلرَّحِيمِ
পরম দয়ালু

পরম দয়াময়, পরম দয়ালুর নিকট হতে অবতীর্ণ।

ব্যাখ্যা
كِتَٰبٌ
এই কিতাব (এমন যে)
فُصِّلَتْ
বিশদভাবে বিবৃত
ءَايَٰتُهُۥ
তার আয়াতসমূহ
قُرْءَانًا
কুরআন
عَرَبِيًّا
আরবী (ভাষার)
لِّقَوْمٍ
(এমন) সম্প্রদায়ের জন্যে
يَعْلَمُونَ
(যারা) জ্ঞান রাখে

এক কিতাব, যার আয়াতগুলো বিস্তারিতভাবে ব্যাখ্যাকৃত, আরবী ভাষার কুরআন, জ্ঞানসম্পন্ন মানুষদের জন্য।

ব্যাখ্যা
بَشِيرًا
(এই কিতাব) সুসংবাদদাতা
وَنَذِيرًا
ও সতর্ককারী
فَأَعْرَضَ
কিন্তু বিমুখ হয়েছে
أَكْثَرُهُمْ
তাদের অনেকেই
فَهُمْ
সুতরাং তারা
لَا
না
يَسْمَعُونَ
শুনে

সুসংবাদবাহী ও সাবধানকারী। কিন্তু ওদের অধিকাংশই (এ কুরআন থেকে) মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে, কাজেই ওরা শুনবে না।

ব্যাখ্যা
وَقَالُوا۟
এবং তারা বলে
قُلُوبُنَا
"আমাদের অন্তরগুলো
فِىٓ
মধ্যে (আছে)
أَكِنَّةٍ
পর্দাসমূহের
مِّمَّا
তা থেকে যা
تَدْعُونَآ
আমাদেরকে তোমরা ডাকছো
إِلَيْهِ
তার দিকে
وَفِىٓ
এবং মধ্যে
ءَاذَانِنَا
আমাদের কানসমূহের
وَقْرٌ
বধিরতা (রয়েছে)
وَمِنۢ
মধ্য হতে
بَيْنِنَا
এবং আমাদের মাঝে
وَبَيْنِكَ
ও তোমার মাঝে
حِجَابٌ
পর্দা (রয়েছে)
فَٱعْمَلْ
তুমি তাই কাজ করো
إِنَّنَا
নিশ্চয়ই আমরা
عَٰمِلُونَ
কাজ করে যাচ্ছি"

তারা বলে, তুমি আমাদেরকে যার দিকে ডাক দিচ্ছ তাত্থেকে আমাদের দিল আবরণে ঢাকা আছে, আর আমাদের কানে আছে বধিরতা, আমাদের আর তোমাদের মাঝে আছে এক পর্দা (অর্থাৎ তোমার দীন প্রচারের কারণে আমাদের ও তোমাদের মাঝে বিচ্ছেদ ঘটে গেছে), কাজেই তুমি তোমার কাজ কর, আমরা আমাদের কাজ করি।

ব্যাখ্যা
قُلْ
(হে নাবী) বলো
إِنَّمَآ
"মূলতঃ
أَنَا۠
আমি
بَشَرٌ
একজন মানুষ
مِّثْلُكُمْ
তোমাদেরই মতো
يُوحَىٰٓ
ওহী করা হয়
إِلَىَّ
আমার প্রতি
أَنَّمَآ
এই যে
إِلَٰهُكُمْ
তোমাদের ইলাহ
إِلَٰهٌ
ইলাহ
وَٰحِدٌ
একই
فَٱسْتَقِيمُوٓا۟
সুতরাং তোমরা দৃঢ় হয়ে থাকো
إِلَيْهِ
তাঁর দিকে
وَٱسْتَغْفِرُوهُۗ
ও তোমরা তাঁর কাছে ক্ষমা চাও"
وَوَيْلٌ
এবং দুর্ভোগ (রয়েছে)
لِّلْمُشْرِكِينَ
মুশরিকদের জন্যে

বল, আমি তোমাদের মতই একজন মানুষ। (পার্থক্য শুধু এই যে) আমার কাছে ওয়াহী করা হয় যে, তোমাদের ইলাহ কেবল এক ইলাহ; কাজেই তোমরা তাঁরই সরল সঠিক পথে চল, তাঁর কাছে ক্ষমা প্রার্থনা কর। ধ্বংস তাদের জন্য যারা আল্লাহর সাথে অন্যদেরকে শরীক গণ্য করে।

ব্যাখ্যা
ٱلَّذِينَ
যারা
لَا
না
يُؤْتُونَ
দেয়
ٱلزَّكَوٰةَ
যাকাত
وَهُم
এবং তারা
بِٱلْءَاخِرَةِ
পরকালকে
هُمْ
তারা
كَٰفِرُونَ
অস্বীকারকারী

যারা যাকাত দেয় না, আর তারা আখিরাত অমান্য করে।

ব্যাখ্যা
إِنَّ
নিশ্চয়ই
ٱلَّذِينَ
যারা
ءَامَنُوا۟
ঈমান এনেছে
وَعَمِلُوا۟
ও কাজ করেছে
ٱلصَّٰلِحَٰتِ
নেক
لَهُمْ
তাদের জন্যে
أَجْرٌ
পুরস্কার রয়েছে
غَيْرُ
ব্যতীত
مَمْنُونٍ
শেষ হওয়া (অফুরন্ত)

যারা ঈমান আনে আর নেক কাজ করে, তাদের জন্য আছে এমন পুরস্কার যা কোন দিনও বন্ধ হবে না।

ব্যাখ্যা
قُلْ
বলো
أَئِنَّكُمْ
"তোমরা নিশ্চিত কি
لَتَكْفُرُونَ
অস্বীকার করছো অবশ্যই
بِٱلَّذِى
(তাকে) যিনি
خَلَقَ
সৃষ্টি করেছেন
ٱلْأَرْضَ
পৃথিবীকে
فِى
মধ্যে
يَوْمَيْنِ
দু'দিনের
وَتَجْعَلُونَ
অথচ তোমরা দাঁড় করাচ্ছো
لَهُۥٓ
তাঁর জন্যে
أَندَادًاۚ
সমকক্ষ (অন্যদেরকে)
ذَٰلِكَ
তিনিই
رَبُّ
রব
ٱلْعَٰلَمِينَ
বিশ্বজগতের"

বল- তোমরা কি তাঁকে অস্বীকারই করছ যিনি যমীনকে সৃষ্টি করেছেন দু’দিনে আর তাঁর সমকক্ষ বানাচ্ছ? তিনিই তো বিশ্বজগতের রব্ব।

ব্যাখ্যা
وَجَعَلَ
এবং তিনি স্হাপন করেছেন
فِيهَا
তার মধ্যে (অর্থাৎ পৃথিবীতে)
رَوَٰسِىَ
পর্বতমালা
مِن
থেকে
فَوْقِهَا
তার উপর
وَبَٰرَكَ
এবং কল্যাণ দিয়েছেন
فِيهَا
তার মধ্যে
وَقَدَّرَ
এবং নির্ধারণ করেছেন
فِيهَآ
তার মধ্যে
أَقْوَٰتَهَا
তার খাদ্য (অর্থাৎ খাদ্যসম্ভার)
فِىٓ
মধ্যে
أَرْبَعَةِ
চার
أَيَّامٍ
দিনের
سَوَآءً
সমানভাবে
لِّلسَّآئِلِينَ
প্রার্থীদের জন্যে

(যমীন সৃষ্টির পর) তার বুকে তিনি সৃদৃঢ় পর্বতমালা স্থাপন করেছেন, যমীনকে বরকতমন্ডিত করেছেন আর তাতে প্রার্থীদের প্রয়োজন মুতাবেক নির্দিষ্ট পরিমাণ খাদ্য সঞ্চিত করেছেন চার দিনে।

ব্যাখ্যা
সম্পর্কে তথ্য :
হা-মীম সেজদাহ
القرآن الكريم:فصلت
আধিপত্য একটি আয়াত (سجدة):38
সূরা নাম (latin):Fussilat
সূরা না:41
মোট আয়াত:54
মোট শব্দ:796
মোট অক্ষর:3350
রুকু সংখ্যা:6
উদ্ঘাটন অবস্থান:মক্কা
উদ্ঘাটন আদেশ:61
শ্লোক থেকে শুরু:4218