Skip to main content
ARBNDEENIDTRUR
بَرَآءَةٌ
সম্পর্কচ্ছেদ (ঘোষণা)
مِّنَ
পক্ষ হতে
ٱللَّهِ
আল্লাহর
وَرَسُولِهِۦٓ
ও রাসূলের তাঁর
إِلَى
প্রতি
ٱلَّذِينَ
তাদের (যাদের সাথে)
عَٰهَدتُّم
চুক্তি করেছিলে তোমরা
مِّنَ
মধ্য হতে
ٱلْمُشْرِكِينَ
মুশরিকদের

মুশরিকদের মধ্যেকার যাদের সঙ্গে তোমরা সন্ধিচুক্তি করেছিলে তাদের সাথে আল্লাহ ও তাঁর রসূলের পক্ষ হতে সম্পর্কচ্ছেদের ঘোষণা দেয়া হল।

ব্যাখ্যা
فَسِيحُوا۟
অতএব তোমরা চলাচল করো
فِى
মধ্যে
ٱلْأَرْضِ
দেশের
أَرْبَعَةَ
চার
أَشْهُرٍ
মাস (পর্যন্ত)
وَٱعْلَمُوٓا۟
ও তোমরা জেনে রাখো
أَنَّكُمْ
যে তোমরা
غَيْرُ
নও
مُعْجِزِى
অক্ষমকারী
ٱللَّهِۙ
আল্লাহকে
وَأَنَّ
ও নিশ্চয়ই
ٱللَّهَ
আল্লাহ
مُخْزِى
লাঞ্ছনাকারী
ٱلْكَٰفِرِينَ
কাফেরদেরকে

অতঃপর (হে কাফিরগণ!) চার মাস তোমরা যমীনে (ইচ্ছে মত) চলাফেরা করে নাও; আর জেনে রেখ যে, তোমরা আল্লাহকে নত করতে পারবে না, আল্লাহ্ই সত্য প্রত্যাখ্যানকারীদেরকে লাঞ্ছিত করবেন।

ব্যাখ্যা
وَأَذَٰنٌ
এবং সাধারণ ঘোষণা
مِّنَ
পক্ষ হতে
ٱللَّهِ
আল্লাহর
وَرَسُولِهِۦٓ
এবং রাসূলের তাঁর
إِلَى
প্রতি
ٱلنَّاسِ
জনসাধারণের
يَوْمَ
দিনে
ٱلْحَجِّ
হজ্জের
ٱلْأَكْبَرِ
মহান
أَنَّ
যে
ٱللَّهَ
আল্লাহ
بَرِىٓءٌ
দায়মুক্ত
مِّنَ
থেকে
ٱلْمُشْرِكِينَۙ
মুশরিকদের
وَرَسُولُهُۥۚ
এবং রাসূলও তাঁর (দ্বায়িত্বমুক্ত)
فَإِن
অতএব যদি
تُبْتُمْ
তোমরা তাওবা করো
فَهُوَ
তবে তা
خَيْرٌ
উত্তম
لَّكُمْۖ
জন্যে তোমাদের
وَإِن
আর যদি
تَوَلَّيْتُمْ
ফিরে যাও তোমরা
فَٱعْلَمُوٓا۟
তবে তোমরা জেনে রাখো
أَنَّكُمْ
যে তোমরা
غَيْرُ
নও
مُعْجِزِى
অক্ষমকারী
ٱللَّهِۗ
আল্লাহকে
وَبَشِّرِ
এবং সুসংবাদ দাও
ٱلَّذِينَ
(তাদেরকে) যারা
كَفَرُوا۟
অস্বীকার করেছে
بِعَذَابٍ
সম্পর্কে শাস্তির
أَلِيمٍ
নিদারুণ

আল্লাহ ও তাঁর রসূলের পক্ষ হতে বড় হাজ্জের দিনে মানুষদের কাছে ঘোষণা দেয়া হল যে আল্লাহ মুশরিকদের সাথে সম্পর্কহীন এবং তাঁর রসূলও। কাজেই এখন যদি তোমরা তাওবাহ কর, তাতে তোমাদেরই ভাল হবে, আর যদি তোমরা মুখ ফিরিয়ে নাও তাহলে জেনে রেখ যে, তোমরা আল্লাহকে হীন-দুর্বল করতে পারবে না, আর যারা কুফরী করে চলেছে তাদেরকে ভয়াবহ শাস্তির সুসংবাদ শুনিয়ে দাও।

ব্যাখ্যা
إِلَّا
তবে
ٱلَّذِينَ
যাদের (সাথে)
عَٰهَدتُّم
চুক্তি করেছো তোমরা
مِّنَ
মধ্য হতে
ٱلْمُشْرِكِينَ
মুশরিকদের
ثُمَّ
এরপর
لَمْ
নি
يَنقُصُوكُمْ
তোমাদের সাথে ত্রুটি করে(চুক্তি রক্ষায়)
شَيْـًٔا
কিছুমাত্র
وَلَمْ
এবং নি
يُظَٰهِرُوا۟
তারা সাহায্য করে
عَلَيْكُمْ
বিরুদ্ধে তোমাদের
أَحَدًا
কাউকে
فَأَتِمُّوٓا۟
তাহ'লে তোমরা পূর্ণ করো
إِلَيْهِمْ
সাথে তাদের
عَهْدَهُمْ
চুক্তি তাদের
إِلَىٰ
পর্যন্ত
مُدَّتِهِمْۚ
মেয়াদ তাদের
إِنَّ
নিশ্চয়ই
ٱللَّهَ
আল্লাহ
يُحِبُّ
ভালোবাসেন
ٱلْمُتَّقِينَ
মুত্তাকীদেরকে

কিন্তু মুশরিকদের মধ্যে যারা তোমাদের সঙ্গে চুক্তি রক্ষার ব্যাপারে বিন্দুমাত্র ত্রুটি করেনি, আর তোমাদের বিরুদ্ধে কাউকে সাহায্যও করেনি, তাদের সাথে নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত চুক্তি পূর্ণ কর। অবশ্যই আল্লাহ মুত্তাকীদের ভালবাসেন।

ব্যাখ্যা
فَإِذَا
অতঃপর যখন
ٱنسَلَخَ
অতিবাহিত হয়
ٱلْأَشْهُرُ
মাসসমূহ
ٱلْحُرُمُ
নিষিদ্ধ
فَٱقْتُلُوا۟
তখন তোমরা হত্যা করো
ٱلْمُشْرِكِينَ
মুশরিকদেরকে
حَيْثُ
যেখানে
وَجَدتُّمُوهُمْ
তোমরা পাও তাদেরকে
وَخُذُوهُمْ
ও তোমরা ধরো তাদেরকে
وَٱحْصُرُوهُمْ
ও তোমরা অবরোধ করো তাদেরকে
وَٱقْعُدُوا۟
এবং তোমরা বসো
لَهُمْ
জন্যে তাদের
كُلَّ
প্রত্যেক
مَرْصَدٍۚ
ঘাঁটিতে
فَإِن
অতঃপর যদি
تَابُوا۟
তারা তওবা করে
وَأَقَامُوا۟
ও তারা প্রতিষ্ঠা করে
ٱلصَّلَوٰةَ
সালাত
وَءَاتَوُا۟
ও তারা দেয়
ٱلزَّكَوٰةَ
যাকাত
فَخَلُّوا۟
তবে তোমরা ছেড়ে দাও
سَبِيلَهُمْۚ
রাস্তা তাদের
إِنَّ
নিশ্চয়ই
ٱللَّهَ
আল্লাহ
غَفُورٌ
ক্ষমাশীল
رَّحِيمٌ
পরম দয়ালু

তারপর (এই) নিষিদ্ধ মাস অতিক্রান্ত হয়ে গেলে মুশরিকদেরকে যেখানে পাও হত্যা কর, তাদেরকে পাকড়াও কর, তাদেরকে ঘেরাও কর, তাদের অপেক্ষায় প্রত্যেক ঘাঁটিতে ওৎ পেতে বসে থাক। কিন্তু তারা যদি তাওবাহ করে, নামায প্রতিষ্ঠা করে, যাকাত আদায় করে, তাহলে তাদের পথ ছেড়ে দাও, নিশ্চয়ই আল্লাহ বড়ই ক্ষমাশীল, বড়ই দয়ালু।

ব্যাখ্যা
وَإِنْ
এবং যদি
أَحَدٌ
কেউ
مِّنَ
মধ্য হতে
ٱلْمُشْرِكِينَ
মুশরিকদের
ٱسْتَجَارَكَ
তোমার আশ্রয় চায়
فَأَجِرْهُ
তবে তাকে আশ্রয় দাও
حَتَّىٰ
যতক্ষণ না
يَسْمَعَ
সে শুনে
كَلَٰمَ
বাণী
ٱللَّهِ
আল্লাহর
ثُمَّ
এরপর
أَبْلِغْهُ
তাকে পৌঁছাও
مَأْمَنَهُۥۚ
নিরাপদ স্থানে তার
ذَٰلِكَ
এটা
بِأَنَّهُمْ
এজন্যে যে তারা
قَوْمٌ
(এমন)সম্প্রদায়
لَّا
না
يَعْلَمُونَ
তারা জানে

মুশরিকদের কেউ যদি তোমার কাছে আশ্রয় প্রার্থনা করে তবে তাকে আশ্রয় দাও যাতে সে আল্লাহর বাণী শোনার সুযোগ পায়; তারপর তাকে তার নিরাপদ জায়গায় পৌঁছে দাও। এটা এজন্য করতে হবে যে, এরা এমন এক সম্প্রদায় যারা (ভাল-মন্দ, সত্য-মিথ্যা সম্পর্কে) অজ্ঞ।

ব্যাখ্যা
كَيْفَ
কেমন করে
يَكُونُ
(বহাল) থাকবে
لِلْمُشْرِكِينَ
জন্যে মুশরিকদের
عَهْدٌ
চুক্তি
عِندَ
কাছে
ٱللَّهِ
আল্লাহর
وَعِندَ
ও কাছে
رَسُولِهِۦٓ
রাসূলের তাঁর
إِلَّا
এ ছাড়া
ٱلَّذِينَ
যাদের (সাথে)
عَٰهَدتُّمْ
তোমরা চুক্তি করেছো
عِندَ
কাছে
ٱلْمَسْجِدِ
মাসজিদে
ٱلْحَرَامِۖ
হারামের
فَمَا
তাই যতক্ষণ
ٱسْتَقَٰمُوا۟
তারা স্হির থাকে
لَكُمْ
জন্যে তোমাদের
فَٱسْتَقِيمُوا۟
অতঃপর তোমরাও স্হির থাকো
لَهُمْۚ
জন্যে তাদের
إِنَّ
নিশ্চয়ই
ٱللَّهَ
আল্লাহ
يُحِبُّ
ভালোবাসেন
ٱلْمُتَّقِينَ
মুত্তাকীদের

আল্লাহ ও তাঁর রসূলের সঙ্গে মুশরিকদের চুক্তি কী করে কার্যকর থাকতে পারে? অবশ্য ঐসব লোক ছাড়া যাদের সঙ্গে তোমরা মাসজিদুল হারামের নিকট চুক্তিবদ্ধ হয়েছিলে; তারা যদ্দিন তোমাদের সঙ্গে চুক্তি ঠিক রাখে, তোমরাও তাদের সঙ্গে কৃত চুক্তিতে দৃঢ় থাক। নিশ্চয়ই আল্লাহ মুত্তাকীদের ভালবাসেন।

ব্যাখ্যা
كَيْفَ
কেমন করে (চুক্তি বহাল) থাকবে
وَإِن
অথচ যদি
يَظْهَرُوا۟
তারা বিজয়ী হয়
عَلَيْكُمْ
উপর তোমাদের
لَا
না
يَرْقُبُوا۟
তারা সম্মান করে
فِيكُمْ
ব্যাপারে তোমাদের
إِلًّا
আত্মীয়তার
وَلَا
আর না
ذِمَّةًۚ
প্রতিশ্রুতির (দায়িত্ব)
يُرْضُونَكُم
খুশী করে তোমাদের
بِأَفْوَٰهِهِمْ
দিয়ে মুখের কথা তাদের
وَتَأْبَىٰ
ও অস্বীকার করে
قُلُوبُهُمْ
অন্তর তাদের
وَأَكْثَرُهُمْ
এবং অধিকাংশই তাদের
فَٰسِقُونَ
সত্যত্যাগী

কীভাবে (চুক্তি থাকতে পারে) যদি তারা তোমাদেরকে পরাজিত করতে পারে তাহলে তারা তোমাদের সঙ্গে না আত্মীয়তার মর্যাদা দেয়, আর না ওয়াদা-অঙ্গীকারের; তারা তাদের মুখের কথায় তোমাদেরকে সন্তুষ্ট রাখতে চায় কিন্তু তাদের অন্তর তা অস্বীকার করে, তাদের অধিকাংশই সত্যত্যাগী অপরাধী।

ব্যাখ্যা
ٱشْتَرَوْا۟
তারা কিনেছে
بِـَٔايَٰتِ
বিনিময়ে আয়াতের
ٱللَّهِ
আল্লাহর
ثَمَنًا
মূল্য
قَلِيلًا
সামান্য
فَصَدُّوا۟
অতঃপর তারা বাধা দেয় (লোকদেরকে)
عَن
হতে
سَبِيلِهِۦٓۚ
তাঁর পথ
إِنَّهُمْ
নিশ্চয়ই তারা
سَآءَ
অতি নিকৃষ্ট
مَا
যা
كَانُوا۟
তারা ছিলো
يَعْمَلُونَ
তারা কাজ করে আসছে

আল্লাহর আয়াতকে তারা (দুনিয়াবী স্বার্থে) অতি তুচ্ছ মূল্যে বিক্রি করে দিয়েছে, আল্লাহর পথে (মানুষদের চলার ক্ষেত্রে) প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করেছে। তারা যা করে কতই না জঘন্য সে কাজ।

ব্যাখ্যা
لَا
না
يَرْقُبُونَ
তারা সম্মান করে
فِى
ব্যাপারে
مُؤْمِنٍ
মু'মিনের
إِلًّا
আত্মীয়তার
وَلَا
আর না
ذِمَّةًۚ
প্রতিশ্রুতির (দায়িত্ব)
وَأُو۟لَٰٓئِكَ
এবং ঐসব লোক
هُمُ
তারা
ٱلْمُعْتَدُونَ
সীমালঙ্ঘনকারী

কোন ঈমানদার ব্যক্তির ব্যাপারে তারা না কোন আত্মীয়তার মর্যাদা দেয়, আর না কোন ওয়াদা-অঙ্গীকারের। এরা হল সেই লোক যারা সীমালঙ্ঘনকারী।

ব্যাখ্যা
সম্পর্কে তথ্য :
আত তাওবাহ
القرآن الكريم:التوبة
আধিপত্য একটি আয়াত (سجدة):-
সূরা নাম (latin):At-Taubah
সূরা না:9
মোট আয়াত:129
মোট শব্দ:4078
মোট অক্ষর:10084
রুকু সংখ্যা:16
উদ্ঘাটন অবস্থান:মদিনা
উদ্ঘাটন আদেশ:113
শ্লোক থেকে শুরু:1235