Skip to main content
ARBNDEENIDTRUR
bismillah
يَسْـَٔلُونَكَ
তোমাকে তারা জিজ্ঞাসা করে
عَنِ
সম্পর্কে
ٱلْأَنفَالِۖ
যুদ্ধলব্ধ সম্পদ
قُلِ
বলো
ٱلْأَنفَالُ
"যুদ্ধলব্ধ সম্পদ
لِلَّهِ
জন্যে আল্লাহর
وَٱلرَّسُولِۖ
ও রাসূলের (জন্যে)
فَٱتَّقُوا۟
অতএব তোমরা ভয় করো
ٱللَّهَ
আল্লাহকে
وَأَصْلِحُوا۟
এবং তোমরা সংশোধন করো
ذَاتَ
অবস্থা
بَيْنِكُمْۖ
মধ্যকার তোমাদের
وَأَطِيعُوا۟
এবং তোমরা আনুগত্য করো
ٱللَّهَ
আল্লাহর
وَرَسُولَهُۥٓ
এবং রাসূলের তাঁর
إِن
যদি
كُنتُم
হও তোমরা
مُّؤْمِنِينَ
মু'মিন"

তারা তোমাকে যুদ্ধে প্রাপ্ত সম্পদ সম্পর্কে জিজ্ঞেস করছে। বল, ‘যুদ্ধে প্রাপ্ত সম্পদ হচ্ছে আল্লাহ ও তাঁর রসূলের; কাজেই তোমরা আল্লাহকে ভয় কর আর নিজেদের সম্পর্ককে সুষ্ঠু সুন্দর ভিত্তির উপর প্রতিষ্ঠিত কর। তোমরা যদি মু’মিন হয়ে থাক তবে তোমরা আল্লাহ ও তাঁর রসূলের আনুগত্য কর।’

ব্যাখ্যা
إِنَّمَا
প্রকৃতপক্ষে
ٱلْمُؤْمِنُونَ
মু'মিন
ٱلَّذِينَ
(তারাই) যারা
إِذَا
(এমন যে) যখন
ذُكِرَ
স্মরণ করা হয়
ٱللَّهُ
আল্লাহর
وَجِلَتْ
কেঁপে উঠে
قُلُوبُهُمْ
অন্তরগুলো তাদের
وَإِذَا
এবং যখন
تُلِيَتْ
পাঠ করা হয়
عَلَيْهِمْ
নিকট তাদের
ءَايَٰتُهُۥ
আয়াতগুলো তাঁর
زَادَتْهُمْ
বৃদ্ধি পায় তাদের
إِيمَٰنًا
ঈমান
وَعَلَىٰ
ও উপর
رَبِّهِمْ
রবের তাদের
يَتَوَكَّلُونَ
তারা নির্ভর করে

মু’মিন তো তারাই আল্লাহর কথা আলোচিত হলেই যাদের অন্তর কেঁপে উঠে, আর তাদের কাছে যখন তাঁর আয়াত পঠিত হয়, তখন তা তাদের ঈমান বৃদ্ধি করে আর তারা তাদের প্রতিপালকের উপর নির্ভর করে।

ব্যাখ্যা
ٱلَّذِينَ
যারা
يُقِيمُونَ
প্রতিষ্ঠা করে
ٱلصَّلَوٰةَ
সালাত
وَمِمَّا
ও (তা) হতে যা
رَزَقْنَٰهُمْ
আমরা জীবিকা দিয়েছি তাদের
يُنفِقُونَ
তারা ব্যয় করে

তারা নামায ক্বায়িম করে, আর আমি তাদেরকে যে জীবিকা দিয়েছি তাত্থেকে ব্যয় করে।

ব্যাখ্যা
أُو۟لَٰٓئِكَ
ঐসব(লোক)
هُمُ
তারাই
ٱلْمُؤْمِنُونَ
মু'মিন
حَقًّاۚ
প্রকৃত
لَّهُمْ
জন্যে তাদের(রয়েছে)
دَرَجَٰتٌ
মর্যাদাসমূহ
عِندَ
কাছে
رَبِّهِمْ
রবের তাদের
وَمَغْفِرَةٌ
ও ক্ষমা
وَرِزْقٌ
ও জীবিকা
كَرِيمٌ
সম্মানজনক

এসব লোকেরাই হল প্রকৃত মু’মিন। এদের জন্য এদের প্রতিপালকের নিকট আছে নানান মর্যাদা, ক্ষমা আর সম্মানজনক জীবিকা।

ব্যাখ্যা
كَمَآ
যেমন
أَخْرَجَكَ
তোমাকে বের করেছিলেন
رَبُّكَ
তোমার রব
مِنۢ
থেকে
بَيْتِكَ
তোমার ঘর
بِٱلْحَقِّ
ভাবে ন্যায়
وَإِنَّ
এবং নিশ্চয়ই
فَرِيقًا
একদল
مِّنَ
মধ্য হতে(ছিলো)
ٱلْمُؤْمِنِينَ
মু'মিনদের
لَكَٰرِهُونَ
অবশ্যই অপছন্দকারী

(তারা যেমন প্রকৃত মু’মিন) ঠিক তেমনি প্রকৃতভাবেই তোমার প্রতিপালক তোমাকে তোমার ঘর হতে বের করে এনেছিলেন যদিও মু’মিনদের একদল তা পছন্দ করেনি।

ব্যাখ্যা
يُجَٰدِلُونَكَ
তোমার সাথে তারা বিতর্ক করে
فِى
ব্যাপারে
ٱلْحَقِّ
সত্যের
بَعْدَمَا
পরেও তা
تَبَيَّنَ
সুস্পষ্ট হওয়ার
كَأَنَّمَا
যেন প্রকৃতপক্ষে
يُسَاقُونَ
তারা চালিত হচ্ছে
إِلَى
দিকে
ٱلْمَوْتِ
মৃত্যুর
وَهُمْ
এ অবস্থায়(যেন) তারা
يَنظُرُونَ
প্রত্যক্ষ করছে(মৃত্যু)

সত্য স্পষ্ট হওয়ার পরও তারা তোমার সঙ্গে বাদানুবাদে লিপ্ত হয়েছিল, (তাদের অবস্থা দেখে মনে হচ্ছিল যে,) তারা যেন চেয়ে চেয়ে দেখছিল যে, তাদেরকে মৃত্যুর দিকে তাড়িয়ে নেয়া হচ্ছে।

ব্যাখ্যা
وَإِذْ
এবং (স্মরণ করো)যখন
يَعِدُكُمُ
প্রতিশ্রুতি দেন তোমাদের
ٱللَّهُ
আল্লাহ
إِحْدَى
একটির
ٱلطَّآئِفَتَيْنِ
দুইদলের(মধ্যে)
أَنَّهَا
যে তা(আওতাধীন হবে)
لَكُمْ
জন্যে তোমাদের
وَتَوَدُّونَ
অথচ তোমরা চেয়েছিলে
أَنَّ
যে
غَيْرَ
নয়
ذَاتِ
যুক্ত
ٱلشَّوْكَةِ
কাঁটা
تَكُونُ
তা হবে (সংঘর্ষশীল)
لَكُمْ
জন্যে তোমাদের
وَيُرِيدُ
কিন্তু চান
ٱللَّهُ
আল্লাহ
أَن
যে
يُحِقَّ
সত্যে পরিণত করতে
ٱلْحَقَّ
সত্যকে
بِكَلِمَٰتِهِۦ
দিয়ে বাণীসমূহ তাঁর
وَيَقْطَعَ
এবং কাটবেন
دَابِرَ
মূল
ٱلْكَٰفِرِينَ
কাফেরদের

স্মরণ কর, যখন আল্লাহ তোমাদেরকে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন যে, দু’টি দলের মধ্যে একটি তোমরা পাবে, আর তোমরা চেয়েছিলে যেন নিরস্ত্র দলটি তোমরা লাভ কর আর আল্লাহ চেয়েছিলেন তাঁর বাণী দ্বারা সত্যকে সত্যরূপে প্রতিষ্ঠিত করতে আর কাফিরদের জড় কেটে দিতে।

ব্যাখ্যা
لِيُحِقَّ
যেন সত্যে পরিণত করেন
ٱلْحَقَّ
সত্যকে
وَيُبْطِلَ
ও অসত্যে পরিণত করেন
ٱلْبَٰطِلَ
অসত্যকে
وَلَوْ
এবং যদিও (তা)
كَرِهَ
অপছন্দ করে
ٱلْمُجْرِمُونَ
অপরাধীরা

যাতে তিনি সত্যকে সত্য হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেন আর মিথ্যেকে মিথ্যে প্রমাণিত করেন, যদিও তা পাপীদের কাছে পছন্দনীয় নয়।

ব্যাখ্যা
إِذْ
(স্মরণ করো) যখন
تَسْتَغِيثُونَ
তোমরা সাহায্য চেয়েছিলে
رَبَّكُمْ
তোমাদের রবের কাছে
فَٱسْتَجَابَ
তখন তিনি ডাকে সাড়া দিলেন
لَكُمْ
প্রতি তোমাদের
أَنِّى
"(এভাবে) যে আমি
مُمِدُّكُم
সাহায্য করছি তোমাদের
بِأَلْفٍ
দিয়ে এক হাজার
مِّنَ
মধ্য হতে
ٱلْمَلَٰٓئِكَةِ
ফেরেশতাদের
مُرْدِفِينَ
ধারাবাহিকভাবে আগত"

স্মরণ কর, যখন তোমরা তোমাদের প্রতিপালকের নিকট সাহায্য প্রার্থনা করছিলে তখন তিনি তোমাদেরকে জবাব দিলেন, ‘আমি তোমাদেরকে এক হাজার ফেরেশতা দিয়ে সাহায্য করব যারা পর পর আসবে।’

ব্যাখ্যা
وَمَا
এবং না
جَعَلَهُ
করেছিলেন তা
ٱللَّهُ
আল্লাহ
إِلَّا
এ ছাড়া
بُشْرَىٰ
সুসংবাদ হিসেবে
وَلِتَطْمَئِنَّ
এবং যেন প্রশান্ত হয়
بِهِۦ
দিয়ে তা
قُلُوبُكُمْۚ
অন্তরসমূহ তোমাদের
وَمَا
এবং না
ٱلنَّصْرُ
সাহায্য(আসে)
إِلَّا
এ ছাড়া
مِنْ
হতে
عِندِ
নিকট
ٱللَّهِۚ
আল্লাহর
إِنَّ
নিশ্চয়ই
ٱللَّهَ
আল্লাহ
عَزِيزٌ
পরাক্রমশালী
حَكِيمٌ
মহাবিজ্ঞ

আর আল্লাহ যে এটা করেছিলেন তার উদ্দেশ্য তোমাদেরকে সুসংবাদ দান ছাড়া অন্য কিছু নয় আর যাতে এর মাধ্যমে তোমাদের অন্তর প্রশান্তি লাভ করে। কেননা, সাহায্য তো একমাত্র আল্লাহর নিকট থেকেই আসে। আল্লাহ তো মহাপরাক্রমশালী, মহাবিজ্ঞানী।

ব্যাখ্যা
সম্পর্কে তথ্য :
আল-আনফাল
القرآن الكريم:الأنفال
আধিপত্য একটি আয়াত (سجدة):-
সূরা নাম (latin):Al-Anfal
সূরা না:8
মোট আয়াত:75
মোট শব্দ:1075
মোট অক্ষর:5080
রুকু সংখ্যা:10
উদ্ঘাটন অবস্থান:মদিনা
উদ্ঘাটন আদেশ:88
শ্লোক থেকে শুরু:1160