Skip to main content
ARBNDEENIDTRUR
bismillah
يَٰٓأَيُّهَا
হে
ٱلنَّاسُ
মানবজাতি
ٱتَّقُوا۟
তোমরা ভয় করো
رَبَّكُمْۚ
তোমাদের রবকে
إِنَّ
নিশ্চয়ই
زَلْزَلَةَ
প্রকম্পন
ٱلسَّاعَةِ
ক্বিয়ামাতের
شَىْءٌ
ব্যাপার
عَظِيمٌ
ভয়ংকর

হে মানুষ! তোমরা তোমাদের প্রতিপালককে ভয় কর, কিয়ামাতের কম্পন এক ভয়ানক জিনিস।

ব্যাখ্যা
يَوْمَ
যেদিন
تَرَوْنَهَا
তা তোমরা দেখবে (সেদিন)
تَذْهَلُ
বিস্মৃত হবে
كُلُّ
প্রত্যেক
مُرْضِعَةٍ
স্তন্যদাত্রী (মা)
عَمَّآ
তাহ'তে যাকে
أَرْضَعَتْ
সে দুধপান করিয়েছে (অর্থাৎ দুগ্ধপোষ্যকে)
وَتَضَعُ
ও গর্ভপাত করবে
كُلُّ
প্রত্যেক
ذَاتِ
সম্পন্ন
حَمْلٍ
গর্ভ (গর্ভবতী)
حَمْلَهَا
তার গর্ভকে
وَتَرَى
এবং দেখবে
ٱلنَّاسَ
লোকদেরকে
سُكَٰرَىٰ
মাতালের মতো
وَمَا
অথচ না
هُم
তারা (হবে)
بِسُكَٰرَىٰ
মাতাল
وَلَٰكِنَّ
কিন্তু
عَذَابَ
শাস্তি
ٱللَّهِ
আল্লাহ্‌র
شَدِيدٌ
কঠিন (শাস্তি)

সেদিন তুমি দেখবে প্রতিটি দুগ্ধদায়িনী ভুলে যাবে তার দুগ্ধপোষ্য শিশুকে, আর প্রত্যেক গর্ভবতী গর্ভপাত করে ফেলবে, আর মানুষকে দেখবে মাতাল, যদিও তারা প্রকৃতপক্ষে মাতাল নয়, কিন্তু আল্লাহর শাস্তি বড়ই কঠিন (যার কারণে তাদের ঐ অবস্থা ঘটবে)।

ব্যাখ্যা
وَمِنَ
আর কেউ কেউ (মধ্য হ'তে)
ٱلنَّاسِ
মানুষের
مَن
যারা
يُجَٰدِلُ
(যারা) বিতর্ক করে
فِى
সম্বন্ধে
ٱللَّهِ
আল্লাহর
بِغَيْرِ
ব্যতীত
عِلْمٍ
কোন জ্ঞান
وَيَتَّبِعُ
এবং অনুসরণ করে
كُلَّ
প্রত্যেক
شَيْطَٰنٍ
শয়তানকে
مَّرِيدٍ
উদ্ধত

কতক মানুষ জ্ঞান ছাড়াই আল্লাহ সম্বন্ধে বাদানুবাদ করে, আর প্রত্যেক অবাধ্য শয়ত্বানের অনুসরণ করে।

ব্যাখ্যা
كُتِبَ
লিখে দেয়া হয়েছে
عَلَيْهِ
তার সম্পর্কে
أَنَّهُۥ
যে তা (এমন)
مَن
যে কেউ
تَوَلَّاهُ
তাকে বন্ধু বানাবে
فَأَنَّهُۥ
তখন সে নিশ্চয়ই
يُضِلُّهُۥ
তাকে বিভ্রান্ত করবে
وَيَهْدِيهِ
ও তাকে পরিচালিত করবে
إِلَىٰ
দিকে
عَذَابِ
শাস্তির
ٱلسَّعِيرِ
জ্বলন্ত অাগুনের

যার (অর্থাৎ শয়ত্বানের) সম্পর্কে বিধান করা হয়েছে যে, যে কেউ তার সঙ্গে বন্ধুত্ব গড়বে, সে তাকে বিপথগামী করবে, আর তাকে প্রজ্জ্বলিত অগ্নি শাস্তির দিকে পরিচালিত করবে।

ব্যাখ্যা
يَٰٓأَيُّهَا
হে
ٱلنَّاسُ
মানবজাতি
إِن
যদি
كُنتُمْ
তোমরা হও
فِى
মধ্যে
رَيْبٍ
সন্দেহের
مِّنَ
সম্পর্কে
ٱلْبَعْثِ
উত্থান
فَإِنَّا
তবে নিশ্চয়ই আমরা
خَلَقْنَٰكُم
তোমাদেরকে আমরা সৃষ্টি করেছি
مِّن
হ'তে
تُرَابٍ
মাটি
ثُمَّ
এরপর
مِن
হ'তে
نُّطْفَةٍ
শুক্র
ثُمَّ
এরপর
مِنْ
হ'তে
عَلَقَةٍ
রক্তপিন্ড
ثُمَّ
এরপর
مِن
হ'তে
مُّضْغَةٍ
মাংসপিন্ড
مُّخَلَّقَةٍ
পূর্ণাকৃতির
وَغَيْرِ
ও নয়
مُخَلَّقَةٍ
পূর্ণাকৃতির
لِّنُبَيِّنَ
যেন স্পষ্ট করি আমরা প্রকৃত সত্য
لَكُمْۚ
কাছে তোমাদের
وَنُقِرُّ
এবং আমরা স্থিতিশীল করি
فِى
মধ্যে
ٱلْأَرْحَامِ
জরায়ুসমূহের
مَا
যেমন
نَشَآءُ
চাই আমরা
إِلَىٰٓ
পর্যন্ত
أَجَلٍ
সময়
مُّسَمًّى
নির্দিষ্ট
ثُمَّ
এরপর
نُخْرِجُكُمْ
তোমাদেরকে বের করি আমরা
طِفْلًا
শিশুরূপে
ثُمَّ
এরপর (ব্যবস্থা করি)
لِتَبْلُغُوٓا۟
যেন তোমরা পৌঁছে যাও
أَشُدَّكُمْۖ
যৌবনে তোমাদের
وَمِنكُم
আর তোমাদের মধ্য হ'তে
مَّن
কাউকে
يُتَوَفَّىٰ
মৃত্যূ দেয়া হয়
وَمِنكُم
আবার তোমাদের মধ্য হ'তে
مَّن
কাউকে
يُرَدُّ
প্রত্যাবর্তন করানো হয়
إِلَىٰٓ
দিকে
أَرْذَلِ
হীনতম
ٱلْعُمُرِ
বয়সের
لِكَيْلَا
যেন না
يَعْلَمَ
সে জানবে
مِنۢ
থেকে
بَعْدِ
পর
عِلْمٍ
সবকিছু জেনে নেয়ার
شَيْـًٔاۚ
কিছুমাত্র
وَتَرَى
এবং তুমি দেখছো
ٱلْأَرْضَ
ভূমিকে
هَامِدَةً
শুকনো
فَإِذَآ
অতঃপর যখন
أَنزَلْنَا
আমরা বর্ষণ করি
عَلَيْهَا
তার উপর
ٱلْمَآءَ
পানি
ٱهْتَزَّتْ
তা সতেজ হয়
وَرَبَتْ
ও ফুলে ফেঁপে ওঠে
وَأَنۢبَتَتْ
এবং উদ্‌গত করে
مِن
প্রকার
كُلِّ
সর্ব
زَوْجٍۭ
উদ্ভিদ
بَهِيجٍ
সুদৃশ্য

হে মানুষ! পুনরুত্থানের ব্যাপারে যদি তোমরা সন্দিহান হও, তাহলে (চিন্তা করে দেখ) আমি তোমাদেরকে সৃষ্টি করেছি মাটি থেকে, অতঃপর শুক্র হতে, অতঃপর জমাট রক্ত থেকে, অতঃপর মাংসপিন্ড হতে পূর্ণ আকৃতিবিশিষ্ট বা অপূর্ণ আকৃতিবিশিষ্ট অবস্থায় (আমার শক্তি-ক্ষমতা) তোমাদের সামনে স্পষ্ট করে তুলে ধরার জন্য। আর আমি যাকে ইচ্ছে করি তাকে একটা নির্দিষ্ট কাল পর্যন্ত মাতৃগর্ভে রাখি, অতঃপর তোমাদেরকে বের করে আনি শিশুরূপে, অতঃপর (লালন পালন) করি যাতে তোমরা তোমাদের পূর্ণ শক্তির বয়সে পৌঁছতে পার। তোমাদের কারো কারো মৃত্যু ঘটাই, আর কতককে ফিরিয়ে দেয়া হয় নিস্ক্রিয় বার্ধক্যে যাতে (অনেক) জ্ঞান লাভের পরেও তাদের আর কোন জ্ঞান থাকে না। অতঃপর (আরো) তোমরা ভূমিকে দেখ শুষ্ক, মৃত; অতঃপর আমি যখন তাতে পানি বর্ষণ করি তখন তাতে প্রাণ চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়, তা আন্দোলিত ও স্ফীত হয়, আর তা উদগত করে সকল প্রকার নয়নজুড়ানো উদ্ভিদ (জোড়ায় জোড়ায়)।

ব্যাখ্যা
ذَٰلِكَ
এটা
بِأَنَّ
এজন্যে যে
ٱللَّهَ
আল্লাহ
هُوَ
তিনিই
ٱلْحَقُّ
প্রকৃত সত্য
وَأَنَّهُۥ
এবং এসব এজন্যে যে তিনিই
يُحْىِ
জীবিত করেন
ٱلْمَوْتَىٰ
মৃতদেরকে
وَأَنَّهُۥ
এবং (এটা প্রমাণ করে যে) তিনিই
عَلَىٰ
উপর
كُلِّ
সব
شَىْءٍ
কিছুর
قَدِيرٌ
শক্তিমান

এ রকম হয় এজন্য যে, আল্লাহ হলেন সত্য সঠিক, আর তিনিই মৃতকে জীবিত করেন, আর তিনি সকল বিষয়ে ক্ষমতাবান।

ব্যাখ্যা
وَأَنَّ
এবং (এটা প্রমাণ করে) যে
ٱلسَّاعَةَ
ক্বিয়ামাত
ءَاتِيَةٌ
অবশ্যম্ভাবী
لَّا
নেই
رَيْبَ
কোন সন্দেহ
فِيهَا
মধ্যে তার
وَأَنَّ
এবং (এটা প্রমাণ করে) যে
ٱللَّهَ
আল্লাহ
يَبْعَثُ
উত্থিত করবেন
مَن
যারা (আছে)
فِى
মধ্যে
ٱلْقُبُورِ
কবরসমূহের

আর কিয়ামাত অবশ্যই আসবে, এ ব্যাপারে কোন সন্দেহ নেই এবং যারা কবরে আছে আল্লাহ তাদেরকে অবশ্যই পুনরুত্থিত করবেন।

ব্যাখ্যা
وَمِنَ
এবং কেউ কেউ (মধ্য হ'তে)
ٱلنَّاسِ
লোকদের
مَن
যে
يُجَٰدِلُ
ঝগড়া করে
فِى
সম্বন্ধে
ٱللَّهِ
আল্লাহর
بِغَيْرِ
ছাড়াই
عِلْمٍ
কোন জ্ঞান
وَلَا
এবং না (আছে)
هُدًى
(তাদের কাছে) পথ নির্দেশনা
وَلَا
আর না (আছে)
كِتَٰبٍ
কিতাব
مُّنِيرٍ
আলোকময়

তবুও মানুষের মধ্যে এমন আছে যারা জ্ঞান, পথের দিশা ও কোন আলোকপ্রদানকারী কিতাব ছাড়াই আল্লাহ সম্পর্কে বিতর্ক করে।

ব্যাখ্যা
ثَانِىَ
বাঁকা করে
عِطْفِهِۦ
তার ঘাড়
لِيُضِلَّ
জন্যে বিভ্রান্ত করার
عَن
হ'তে
سَبِيلِ
পথ
ٱللَّهِۖ
আল্লাহর
لَهُۥ
জন্যে তার
فِى
মধ্যে আছে
ٱلدُّنْيَا
দুনিয়ার
خِزْىٌۖ
লাঞ্ছনা
وَنُذِيقُهُۥ
আর তাকে আস্বাদন করাবো আমরা
يَوْمَ
দিনে
ٱلْقِيَٰمَةِ
ক্বিয়ামাতের
عَذَابَ
শাস্তি
ٱلْحَرِيقِ
দহনের

(বিতর্ক করে অবজ্ঞাভরে) ঘাড় বাঁকিয়ে (লোকেদেরকে) আল্লাহর পথ থেকে বিচ্যুত করার উদ্দেশে। তার জন্য আছে লাঞ্ছনা এ দুনিয়াতে, আর কিয়ামাতের দিন তাকে আস্বাদন করাব (অগ্নির) দহন যন্ত্রণা।

ব্যাখ্যা
ذَٰلِكَ
(বলা হবে) এটা
بِمَا
এ কারণে যা
قَدَّمَتْ
আগে পাঠিয়েছে
يَدَاكَ
তোমার হাত
وَأَنَّ
এবং (এও) যে
ٱللَّهَ
আল্লাহ
لَيْسَ
নন
بِظَلَّٰمٍ
অত্যাচারী
لِّلْعَبِيدِ
দাসদের প্রতি

(বলা হবে) তোমার হাত দু’খানা আগেই যা পাঠিয়েছিল এটা তারই ফল, কারণ আল্লাহ তো তাঁর বান্দাহদের প্রতি যালিম নন।

ব্যাখ্যা
সম্পর্কে তথ্য :
হাজ্জ্ব
القرآن الكريم:الحج
আধিপত্য একটি আয়াত (سجدة):18,77
সূরা নাম (latin):Al-Hajj
সূরা না:22
মোট আয়াত:78
মোট শব্দ:1291
মোট অক্ষর:5570
রুকু সংখ্যা:10
উদ্ঘাটন অবস্থান:মদিনা
উদ্ঘাটন আদেশ:103
শ্লোক থেকে শুরু:2595