Skip to main content
ARBNDEENIDTRUR
bismillah
يَٰٓأَيُّهَا
হে
ٱلنَّبِىُّ
নাবী
ٱتَّقِ
ভয় করো
ٱللَّهَ
আল্লাহকে
وَلَا
এবং না
تُطِعِ
আনুগত্য করো
ٱلْكَٰفِرِينَ
কাফিরদের
وَٱلْمُنَٰفِقِينَۗ
আর (না) মুনাফিকদেরকে
إِنَّ
নিশ্চয়ই
ٱللَّهَ
আল্লাহ
كَانَ
হলেন
عَلِيمًا
সর্বজ্ঞ
حَكِيمًا
প্রজ্ঞাময়

হে নবী (সা)! আল্লাহকে ভয় কর, আর কাফির ও মুনাফিকদের আনুগত্য কর না, নিশ্চয় আল্লাহ সর্বজ্ঞাতা, মহাপ্রজ্ঞাময়।

ব্যাখ্যা
وَٱتَّبِعْ
এবং অনুসরণ করো
مَا
যা
يُوحَىٰٓ
ওহী করা হয়েছে
إِلَيْكَ
প্রতি তোমার
مِن
পক্ষ হ'তে
رَّبِّكَۚ
রবের তোমার
إِنَّ
নিশ্চয়ই
ٱللَّهَ
আল্লাহ
كَانَ
হলেন
بِمَا
ঐ বিষয়ে যা
تَعْمَلُونَ
তোমরা কাজ করো
خَبِيرًا
খুব অবহিত

তোমার প্রতি তোমার প্রতিপালকের নিকট হতে যা ওয়াহী করা হয় তুমি তার অনুসরণ কর। তোমরা যা কর সে সম্পর্কে আল্লাহ পূর্ণরূপে অবহিত।

ব্যাখ্যা
وَتَوَكَّلْ
এবং নির্ভর করো
عَلَى
উপর
ٱللَّهِۚ
আল্লাহর
وَكَفَىٰ
এবং যথেষ্ট
بِٱللَّهِ
আল্লাহই
وَكِيلًا
(দায়িত্বশীল বা) কর্মবিধায়করূপে

আর তুমি নির্ভর কর আল্লাহর উপর, কর্ম সম্পাদনে আল্লাহই যথেষ্ট।

ব্যাখ্যা
مَّا
না
جَعَلَ
সৃষ্টি করেছেন
ٱللَّهُ
আল্লাহ
لِرَجُلٍ
জন্যে কোনো ব্যক্তির
مِّن
দিয়ে
قَلْبَيْنِ
দু'টি হৃদয়
فِى
মধ্যে
جَوْفِهِۦۚ
অভ্যন্তরে তার
وَمَا
এবং না
جَعَلَ
বানিয়েছেন
أَزْوَٰجَكُمُ
স্ত্রীদেরকে তোমাদের
ٱلَّٰٓـِٔى
যাদেরকে
تُظَٰهِرُونَ
তোমরা জিহার কর
مِنْهُنَّ
মধ্যে হ'তে তাদের
أُمَّهَٰتِكُمْۚ
তোমাদের মা তোমাদের
وَمَا
আর না
جَعَلَ
(আল্লাহ) করেছেন
أَدْعِيَآءَكُمْ
মুখডাকা পুত্রদেরকে (পালকপুত্র)তোমাদের
أَبْنَآءَكُمْۚ
(প্রকৃত)পুত্র তোমাদের
ذَٰلِكُمْ
এটা
قَوْلُكُم
(মুখে বলা)কথা তোমাদের
بِأَفْوَٰهِكُمْۖ
দিয়ে মুখ(বলা)তোমাদের
وَٱللَّهُ
এবং আল্লাহই
يَقُولُ
বলেন
ٱلْحَقَّ
সত্য
وَهُوَ
এবং তিনিই
يَهْدِى
পরিচালনা করেন
ٱلسَّبِيلَ
(সৎ)পথে

আল্লাহ কোন মানুষের বুকে দু’টি অন্তর সৃষ্টি করেননি। তোমাদের স্ত্রীদের মধ্যে যাদের সঙ্গে তোমরা জিহার কর, তিনি তাদেরকে তোমাদের জননী করেননি, আর তিনি তোমাদের পোষ্য পুত্রদেরকে তোমাদের পুত্র করেননি, এগুলো তোমাদের মুখের বুলি, আল্লাহই বলেন সত্য কথা, আর তিনিই দেখান (সঠিক) পথ।

ব্যাখ্যা
ٱدْعُوهُمْ
তোমরা ডাকো তাদেরকে
لِءَابَآئِهِمْ
নিয়ে পিতাদের তাদের (সম্পর্কে)
هُوَ
তা-ই
أَقْسَطُ
অধিক ন্যায়সঙ্গত
عِندَ
কাছে
ٱللَّهِۚ
আল্লাহর
فَإِن
অতঃপর যদি
لَّمْ
না
تَعْلَمُوٓا۟
তোমরা জানো
ءَابَآءَهُمْ
পিতাদের তাদের(পরিচয়)
فَإِخْوَٰنُكُمْ
তবে ভাই তোমাদের
فِى
ভিত্তিতে
ٱلدِّينِ
দ্বীনের
وَمَوَٰلِيكُمْۚ
ও বন্ধু তোমাদের
وَلَيْسَ
এবং নেই
عَلَيْكُمْ
উপর তোমাদের
جُنَاحٌ
কোনো ত্রুটি
فِيمَآ
(এসব বিষয়ে) যা
أَخْطَأْتُم
তোমরা ভুল করে ফেলেছো
بِهِۦ
সম্পর্কে সে
وَلَٰكِن
কিন্তু
مَّا
যা
تَعَمَّدَتْ
ইচ্ছাকৃতভাবে করে
قُلُوبُكُمْۚ
অন্তর তোমাদের
وَكَانَ
এবং হলেন
ٱللَّهُ
আল্লাহ্‌
غَفُورًا
ক্ষমাশীল
رَّحِيمًا
পরম দয়ালু

তাদেরকে তাদের পিতৃ-পরিচয়ে ডাক, আল্লাহর কাছে এটাই অধিক ইনসাফপূর্ণ। আর যদি তোমরা তাদের পিতৃ-পরিচয় না জান, তাহলে তারা তোমাদের দ্বীনী ভাই এবং তোমাদের বন্ধু। এ ব্যাপারে তোমাদের ত্রুটি-বিচ্যুতি হলে তোমাদের কোন গুনাহ্ নেই, কিন্তু (ধর্তব্য হল) তোমাদের অন্তরের সংকল্প। আল্লাহ অতি ক্ষমাশীল, পরম দয়ালু।

ব্যাখ্যা
ٱلنَّبِىُّ
নাবীই
أَوْلَىٰ
অধিক ঘনিষ্ঠ
بِٱلْمُؤْمِنِينَ
কাছে মু’মিনদের
مِنْ
অপেক্ষা
أَنفُسِهِمْۖ
নিজেদের তাদের
وَأَزْوَٰجُهُۥٓ
এবং স্ত্রীগণ তার
أُمَّهَٰتُهُمْۗ
মা তাদের
وَأُو۟لُوا۟
এবং অধিকারীরা
ٱلْأَرْحَامِ
আত্নীয়তা-সম্পর্কের (নিকট আত্মীয়-স্বজনরা মু’মিন হ'লে)
بَعْضُهُمْ
পরস্পরে তাদের
أَوْلَىٰ
অধিক ঘনিষ্ঠ
بِبَعْضٍ
সাথে পরস্পরের
فِى
অনুসারে
كِتَٰبِ
বিধান
ٱللَّهِ
আল্লাহর
مِنَ
চেয়ে
ٱلْمُؤْمِنِينَ
(সাধারণ) মু’মিনদের
وَٱلْمُهَٰجِرِينَ
ও মুহাজিরদের
إِلَّآ
তবে
أَن
(এটা) যে
تَفْعَلُوٓا۟
(চাও যদি) তোমরা করতে পারো
إِلَىٰٓ
প্রতি
أَوْلِيَآئِكُم
(এসব)বন্ধুদের তোমাদের
مَّعْرُوفًاۚ
ভালো ব্যবহার
كَانَ
আছে
ذَٰلِكَ
এটা
فِى
মধ্যে
ٱلْكِتَٰبِ
কিতাবের
مَسْطُورًا
লিখিত

নবী (সাঃ) মু’মিনদের নিকট তাদের নিজেদের চেয়ে ঘনিষ্ঠ, আর তার স্ত্রীগণ তাদের মাতা। আল্লাহর বিধানে মু’মিন ও মুহাজিরদের (দ্বীনী সম্পর্ক) অপেক্ষা আত্মীয়-স্বজনগণ পরস্পর পরস্পরের নিকট ঘনিষ্ঠতর। তবে তোমরা তোমাদের বন্ধু বান্ধবদের প্রতি দয়া-দাক্ষিণ্য প্রদর্শন করতে চাইলে, করতে পার। (আল্লাহর) কিতাবে এটাই লিখিত।

ব্যাখ্যা
وَإِذْ
এবং (স্মরণ করো) যখন
أَخَذْنَا
নিয়েছিলাম আমরা
مِنَ
কাছ থেকে
ٱلنَّبِيِّۦنَ
নাবীদের
مِيثَٰقَهُمْ
অঙ্গীকার তাদের
وَمِنكَ
এবং থেকেও তোমার
وَمِن
এবং থেকে
نُّوحٍ
নূহ
وَإِبْرَٰهِيمَ
এবং ইবরাহীম
وَمُوسَىٰ
এবং মূসা
وَعِيسَى
ও ঈসা
ٱبْنِ
তনয়
مَرْيَمَۖ
মারইয়াম (থেকেও)
وَأَخَذْنَا
এবং নিয়েছিলাম আমরা
مِنْهُم
থেকে তাদের
مِّيثَٰقًا
অঙ্গীকার
غَلِيظًا
দৃঢ়

স্মরণ কর, আমি যখন নবীদের কাছ থেকে অঙ্গীকার নিয়েছিলাম আর তোমার কাছ থেকেও; আর নূহ্, ইব্রাহীম, মূসা আর মারইয়াম পুত্র ‘ঈসা থেকেও। আমি তাদের কাছ থেকে নিয়েছিলাম দৃঢ় অঙ্গীকার

ব্যাখ্যা
لِّيَسْـَٔلَ
যেন সে জিজ্ঞেস করতে পারে
ٱلصَّٰدِقِينَ
সত্যবাদীদেরকে
عَن
সম্বন্ধে
صِدْقِهِمْۚ
সত্যবাদীতা তাদের
وَأَعَدَّ
এবং তিনি প্রস্তুত করে রেখেছেন
لِلْكَٰفِرِينَ
জন্যে কাফিরদের
عَذَابًا
শাস্তি
أَلِيمًا
নিদারুণ

সত্যবাদীদেরকে (অর্থাৎ নবীদেরকে) তাদের সত্যবাদিতা (অর্থাৎ আল্লাহর বাণী পৌঁছে দেয়ার কাজ) সম্পর্কে জিজ্ঞেস করার জন্য। তিনি কাফিরদের জন্য প্রস্তুত করে রেখেছেন ভয়াবহ শাস্তি।

ব্যাখ্যা
يَٰٓأَيُّهَا
হে
ٱلَّذِينَ
যারা
ءَامَنُوا۟
ঈমান এনেছো
ٱذْكُرُوا۟
তোমরা স্মরণ করো
نِعْمَةَ
অনুগ্রহের
ٱللَّهِ
আল্লাহর
عَلَيْكُمْ
প্রতি তোমাদের
إِذْ
যখন
جَآءَتْكُمْ
এসেছিলো তোমাদের (উপর)
جُنُودٌ
(শত্রু) সৈন্যবাহিনী
فَأَرْسَلْنَا
তখন পাঠিয়েছিলাম আমরা
عَلَيْهِمْ
বিরুদ্ধে তাদের
رِيحًا
প্রবল ঝড়
وَجُنُودًا
ও সৈন্যবাহিনী
لَّمْ
নাই
تَرَوْهَاۚ
তোমরা দেখো তা
وَكَانَ
এবং হলেন
ٱللَّهُ
আল্লাহ
بِمَا
ঐ বিষয়ে যা
تَعْمَلُونَ
তোমরা করো
بَصِيرًا
খুব দৃষ্টিমান

হে মু’মিনগণ! তোমরা তোমাদের প্রতি আল্লাহর অনুগ্রহের কথা স্মরণ কর যখন সৈন্যবাহিনী তোমাদের বিরুদ্ধে নিকটবর্তী হয়েছিল, অতঃপর আমি তাদের বিরুদ্ধে পাঠিয়েছিলাম ঝড়ো হাওয়া এবং এক (ফেরেশতারূপী) সৈন্যবাহিনী যা তোমরা দেখনি। তোমরা যা কর আল্লাহ তা প্রত্যক্ষকারী।

ব্যাখ্যা
إِذْ
যখন
جَآءُوكُم
তারা এসেছিলো বিরুদ্ধে তোমাদের
مِّن
হতে
فَوْقِكُمْ
উপর তোমাদের(অঞ্চল)
وَمِنْ
ও হ'তে
أَسْفَلَ
নিচ (অঞ্চল)
مِنكُمْ
হ'তে তোমাদের
وَإِذْ
এবং যখন
زَاغَتِ
বিস্ফোরিত হয়েছিলো
ٱلْأَبْصَٰرُ
চোখসমূহ
وَبَلَغَتِ
ও পৌঁছে গিয়েছিলো
ٱلْقُلُوبُ
প্রাণসমূহ
ٱلْحَنَاجِرَ
কণ্ঠসমূহে
وَتَظُنُّونَ
এবং তোমরা মনে করতে
بِٱللَّهِ
সম্পর্কে আল্লাহ
ٱلظُّنُونَا۠
নানাবিধ ধারণা

তারা যখন তোমাদের কাছে এসেছিল তোমাদের উপর থেকে আর তোমাদের নীচের দিক থেকে, তখন তোমাদের চক্ষু হয়েছিল বিস্ফোরিত আর প্রাণ হয়েছিল কণ্ঠাগত; আর তোমরা আল্লাহ সম্পর্কে নানা রকম (খারাপ) ধারণা পোষণ করতে শুরু করেছিলে।

ব্যাখ্যা
সম্পর্কে তথ্য :
আল আহযাব
القرآن الكريم:الأحزاب
আধিপত্য একটি আয়াত (سجدة):-
সূরা নাম (latin):Al-Ahzab
সূরা না:33
মোট আয়াত:73
মোট শব্দ:1280
মোট অক্ষর:5790
রুকু সংখ্যা:9
উদ্ঘাটন অবস্থান:মদিনা
উদ্ঘাটন আদেশ:90
শ্লোক থেকে শুরু:3533