Skip to main content
ARBNDEENIDTRUR
bismillah
الٓمٓ
আলিফ লা-ম মী-ম

আলিফ-লাম-মীম।

ব্যাখ্যা
ٱللَّهُ
আল্লাহ (এমন সত্তা)
لَآ
নেই
إِلَٰهَ
কোনো ইলাহ
إِلَّا
ছাড়া
هُوَ
তিনি
ٱلْحَىُّ
(তিনিই) চিরঞ্জীব
ٱلْقَيُّومُ
সর্বসত্তার ধারক

আল্লাহ, তিনি ছাড়া সত্যিকারের কোন ইলাহ নেই, তিনি চিরঞ্জীব সকলের রক্ষণাবেক্ষণকারী।

ব্যাখ্যা
نَزَّلَ
তিনি অবতীর্ণ করেছেন
عَلَيْكَ
তোমার উপর
ٱلْكِتَٰبَ
কিতাব
بِٱلْحَقِّ
সত্যসহ
مُصَدِّقًا
সত্যায়নকারী
لِّمَا
তার জন্য যা
بَيْنَ
মাঝে
يَدَيْهِ
(এসেছে হাতের) তার পূর্বে
وَأَنزَلَ
এবং তিনি অবতীর্ণ করেছেন
ٱلتَّوْرَىٰةَ
তওরাত
وَٱلْإِنجِيلَ
ও ইঞ্জীল

তিনি সত্য সহকারে তোমার উপর কিতাব অবতীর্ণ করেছেন, যা পূর্বতন কিতাবের সমর্থক এবং তিনি তাওরাত ও ইঞ্জীল অবতীর্ণ করেছেন ।

ব্যাখ্যা
مِن
থেকে
قَبْلُ
ইতিপূর্ব
هُدًى
সঠিকপথ (হিসেবে)
لِّلنَّاسِ
মানুষের জন্য
وَأَنزَلَ
এবং তিনি অবতীর্ণ করেছেন
ٱلْفُرْقَانَۗ
ফুরকান(ন্যায়-অন্যায়ের মীমাংসা)
إِنَّ
নিশ্চয়ই
ٱلَّذِينَ
যারা
كَفَرُوا۟
অস্বীকার করেছে
بِـَٔايَٰتِ
নিদর্শনগুলোর প্রতি
ٱللَّهِ
আল্লাহর
لَهُمْ
তাদের জন্য
عَذَابٌ
শাস্তি (রয়েছে)
شَدِيدٌۗ
কঠিন
وَٱللَّهُ
এবং আল্লাহ
عَزِيزٌ
পরাক্রমশালী
ذُو
(একটি)
ٱنتِقَامٍ
প্রতিশোধ ক্ষমতা সম্পন্ন

ইতোপূর্বে মানবজাতির পথ প্রদর্শনের জন্য; আর তিনি সেই মানদন্ড নাযিল করেছেন যা হাক্ব ও বাতিলের পার্থক্য দেখিয়ে দেয়; নিশ্চয়ই যারা আল্লাহর আয়াতের সাথে কুফুরী করে, তাদের জন্য কঠিন শাস্তি রয়েছে। আল্লাহ মহাপরাক্রমশালী, দন্ডদাতা।

ব্যাখ্যা
إِنَّ
নিশ্চয়ই
ٱللَّهَ
আল্লাহ (এমন সত্তা)
لَا
না
يَخْفَىٰ
গোপন থাকে
عَلَيْهِ
তাঁর কাছে
شَىْءٌ
কোনো কিছু
فِى
মধ্যে
ٱلْأَرْضِ
পৃথিবীর
وَلَا
আর না
فِى
মধ্যে
ٱلسَّمَآءِ
আকাশের

নিশ্চয়ই ভূমন্ডলের ও নভোমন্ডলের কোন জিনিসই আল্লাহর নিকট গোপন থাকে না।

ব্যাখ্যা
هُوَ
তিনিই (সেই সত্তা)
ٱلَّذِى
যিনি
يُصَوِّرُكُمْ
আকৃতি গঠন করেন তোমাদের
فِى
মধ্যে
ٱلْأَرْحَامِ
মাতৃগর্ভসমূহের
كَيْفَ
যেভাবে
يَشَآءُۚ
তিনি চান
لَآ
নেই
إِلَٰهَ
কোনো ইলাহ
إِلَّا
ছাড়া
هُوَ
তিনি
ٱلْعَزِيزُ
পরাক্রমশালী
ٱلْحَكِيمُ
মহাবিজ্ঞ

তিনিই তোমাদেরকে মায়ের পেটে যেভাবে ইচ্ছে আকৃতি দেন, তিনি ছাড়া সত্যিকারের কোন ইলাহ নেই, তিনি মহাশক্তিমান ও প্রজ্ঞাশীল।

ব্যাখ্যা
هُوَ
তিনিই (সেই সত্তা)
ٱلَّذِىٓ
যিনি
أَنزَلَ
অবতীর্ণ করেছেন
عَلَيْكَ
তোমার উপর
ٱلْكِتَٰبَ
কিতাব
مِنْهُ
তাতে কিছু আছে
ءَايَٰتٌ
আয়াতসমূহ
مُّحْكَمَٰتٌ
মুহকাম (সুদৃঢ়)
هُنَّ
সেগুলো
أُمُّ
জননী (মূল অংশ)
ٱلْكِتَٰبِ
কিতাবের
وَأُخَرُ
এবং অন্যগুলো
مُتَشَٰبِهَٰتٌۖ
মুতাশাবিহ (রূপক সদৃশ)
فَأَمَّا
সুতরাং
ٱلَّذِينَ
যারা
فِى
মধ্যে (আছে)
قُلُوبِهِمْ
তাদের অন্তরে
زَيْغٌ
বক্রতা
فَيَتَّبِعُونَ
ফলে তারা অনুসরণ করে
مَا
(তার) যা
تَشَٰبَهَ
মুতাশাবিহাতের ফলে (রূপক অর্থ দেয়)
مِنْهُ
তার মধ্যে
ٱبْتِغَآءَ
অনুসন্ধানে
ٱلْفِتْنَةِ
ফেতনা(বিরোধ)
وَٱبْتِغَآءَ
এবং অনুসন্ধানে
تَأْوِيلِهِۦۗ
তার ব্যখ্যা
وَمَا
এবং না
يَعْلَمُ
কেউ জানে
تَأْوِيلَهُۥٓ
তার ব্যখ্যা
إِلَّا
ছাড়া
ٱللَّهُۗ
আল্লাহ
وَٱلرَّٰسِخُونَ
এবং (যারা) সুগভীর
فِى
ব্যাপারে
ٱلْعِلْمِ
জ্ঞানের
يَقُولُونَ
তারা বলে
ءَامَنَّا
আমরা বিশ্বাস করেছি
بِهِۦ
তার উপর
كُلٌّ
সবই (এসেছে)
مِّنْ
থেকে
عِندِ
নিকট
رَبِّنَاۗ
আমাদের রবের
وَمَا
এবং না
يَذَّكَّرُ
শিক্ষা নেয় (তা হতে)
إِلَّآ
এছাড়া
أُو۟لُوا۟
লোকেরা
ٱلْأَلْبَٰبِ
বোধশক্তি সম্পন্ন

তিনিই তোমার উপর এমন কিতাব নাযিল করেছেন, যার কতিপয় আয়াত মৌলিক-সুস্পষ্ট অর্থবোধক, এগুলো হল কিতাবের মূল আর অন্যগুলো পুরোপুরি স্পষ্ট নয়; কিন্তু যাদের অন্তরে বক্রতা আছে, তারা গোলযোগ সৃষ্টির উদ্দেশ্যে এবং ভুল ব্যাখ্যার উদ্দেশ্যে উক্ত আয়াতগুলোর অনুসরণ করে যেগুলো পুরোপুরি স্পষ্ট নয়। মূলত; এর মর্ম আল্লাহ ছাড়া কেউই জানে না। যারা জ্ঞানে সুগভীর তারা বলে যে, আমরা তার উপর ঈমান এনেছি, এ সবকিছুই আমাদের প্রতিপালকের নিকট হতে এসেছে, মূলতঃ জ্ঞানবান ব্যক্তিরা ছাড়া কেউই নসীহত গ্রহণ করে না।

ব্যাখ্যা
رَبَّنَا
(তারা বলে) হে আমাদের রব
لَا
না
تُزِغْ
বাঁকা করো
قُلُوبَنَا
আমাদের অন্তরগুলো
بَعْدَ
এর পরে
إِذْ
যখন
هَدَيْتَنَا
আমাদের পথ প্রদর্শন করেছ তুমি
وَهَبْ
এবং দাও
لَنَا
আমাদের জন্য
مِن
থেকে
لَّدُنكَ
তোমার নিকট
رَحْمَةًۚ
দয়া
إِنَّكَ
তুমি নিশ্চয়ই
أَنتَ
তুমিই
ٱلْوَهَّابُ
মহাদাতা

হে আমাদের প্রতিপালক! সৎ পথ প্রদর্শনের পরে তুমি আমাদের অন্তরগুলোকে বক্র করে দিও না, আমাদেরকে তোমার নিকট হতে রহমত প্রদান কর, মূলতঃ তুমিই মহান দাতা।

ব্যাখ্যা
رَبَّنَآ
(তারা বলে) হে আমাদের রব
إِنَّكَ
তুমি নিশ্চয়ই
جَامِعُ
সমবেতকারী
ٱلنَّاسِ
মানুষদের
لِيَوْمٍ
সে দিনের
لَّا
নেই (যাতে)
رَيْبَ
কোনো সন্দেহ
فِيهِۚ
তার মধ্যে
إِنَّ
নিশ্চয়ই
ٱللَّهَ
আল্লাহ
لَا
না
يُخْلِفُ
ব্যতিক্রম করেন
ٱلْمِيعَادَ
প্রতিশ্রুতির

হে আমাদের প্রতিপালক! নিশ্চয়ই তুমি সমুদয় মানুষকে একদিন সমবেত করবে, যাতে কোনও সন্দেহ নাই। নিশ্চয়ই আল্লাহ অঙ্গীকারের খেলাফ করেন না।

ব্যাখ্যা
إِنَّ
নিশ্চয়ই
ٱلَّذِينَ
যারা
كَفَرُوا۟
অস্বীকার করেছে
لَن
কখনও না
تُغْنِىَ
উপকার দিবে
عَنْهُمْ
তাদের জন্য
أَمْوَٰلُهُمْ
তাদের ধনসম্পদগুলো
وَلَآ
আর না
أَوْلَٰدُهُم
সন্তানাদি তাদের
مِّنَ
কাছে
ٱللَّهِ
আল্লাহর
شَيْـًٔاۖ
কিছুমাত্রই
وَأُو۟لَٰٓئِكَ
এবং ঐসব লোক
هُمْ
তারাই (হবে)
وَقُودُ
ইন্ধন
ٱلنَّارِ
আগুনের (দোজখের)

নিশ্চয়ই যারা কুফরী করে তাদের ধন-সম্পদ ও সন্তান-সন্ততি আল্লাহর সামনে কোন কাজে লাগবে না এবং তারাই আগুনের ইন্ধন।

ব্যাখ্যা
সম্পর্কে তথ্য :
আল ইমরান
القرآن الكريم:آل عمران
আধিপত্য একটি আয়াত (سجدة):-
সূরা নাম (latin):Ali 'Imran
সূরা না:3
মোট আয়াত:200
মোট শব্দ:3480
মোট অক্ষর:14520
রুকু সংখ্যা:20
উদ্ঘাটন অবস্থান:মদিনা
উদ্ঘাটন আদেশ:89
শ্লোক থেকে শুরু:293